মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

স্মারক নং-উনিঅ/নবাব/আইন-শৃংখলা/২০১২-৫০৭(৩৫)                                                                           তারিখঃ  ২৯-০৮-২০১২ খ্রিঃ ।

 

 

নবাবগঞ্জ উপজেলার আইন-শৃংখলা কমিটির ২০৩তম সভার কার্যবিবরণীঃ

 

 

সভাপতিঃ

 

 জনাব দেওয়ান মাহবুবুর রহমান

  উপজেলা নির্বাহী অফিসার

  নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

সভার তারিখ ও সময়ঃ

 ২৯-০৮-২০১২ খ্রিঃ,  সকাল ১০.৩০ ঘটিকা

 

স্থানঃ

 নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষ ।

 

উপস্থিতিঃ

 পরিশিষ্ট (ক) দ্রষ্টব্য ।

 

 

 

           সভাপতি উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সম্মানিত উপদেষ্টাগণ ও  উপস্থিত সদস্যবৃন্দকে স্বাগত জানিয়ে  সভার কাজ শুরম্ন করেন । অতঃপর নিম্নরূপ আলোচনা ও সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয় ।

 

 গত সভার কার্যবিবরণী পঠন ও অনুমোদনঃ

      

      শুরম্নতেই সভার কার্যবিবরণী সভায় উপস্থাপন করা হয়। পাঠামেত্ম  সর্বসম্মতিক্রমে উহা দৃঢ়ীকরণ করা হয়।

 

 

২। বিষয়ভিত্তিক আলোচনা ও সিদ্ধামত্মসমূহঃ

 

 

 

ক্রঃ নং

আলোচ্য বিষয়সমূহ

সিদ্ধামত্ম

বাসত্মবায়ন

০১.

মামলা মোকদ্দমা ও সার্বিক পরিস্থিতিঃ                                         

   অফিসার ইন চার্জ, নবাবগঞ্জ থানা সভাকে জানান যে, জুলাই/১২ মাসে মাদক সংক্রামত্ম-৬টি, খুন-১টি, বিবিধ-১১টি সহ সর্বমোট ১৮টি মামলা রম্নজু হয়েছে।

 

 

০২.

বিভিন্ন এলাকার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ঃ

   অফিসার ইনচার্জ (তদমত্ম), নবাবগঞ্জ থানা সভায় জানান যে, এ উপজেলার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক পর্যায়ে রয়েছে। গত ১ মাস আগে যে ডাকাতি হয় তার ব্যাপারে পুলিশ তৎপর রয়েছে এবং জনবলের অভাবে প্রত্যেক ইউনিয়নে টহলের ব্যবস্থা করতে পারছে না। এ উপজেলার আয়তন বেশ  বড় ও বিভিন্ন গ্রাম দুর্গম হওয়ায় প্রয়োজনের সময় পুলিশি সাহায্য পায় না। তাই এ স্বল্প সংখ্যক ফোর্স দিয়ে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়ে। তিনি এ সমস্যা সমাধানের জন্য পুলিশ ফাঁড়ি বৃদ্ধির জন্য সভায় অনুরোধ করেন।

 

   তিনি সভায় আরও জানান যে, চুড়াইন ইউনিয়নে যে হত্যা কান্ড ঘটেছে সেই হত্যা কান্ডে ২১ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়। তার মধ্যে ৩জন গ্রেফতার হয়েছে। বাকীগুলো পলাতক রয়েছে। ঘটনার পর পরই পুলিশ ঘটনা স্থালে যায়। চুড়াইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বক্তব্যের প্রেক্ষেতে এ ঘটনায় নিরহ লোকজনকে জড়নো হবে না বলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(তদমত্ম) আশ্বাস দেন। তাছাড়া তিনি আরও বলেন যে, গত মাসে ৩ (তিন) কেজি গাঁজা ও ৬ (ছয়) লিটার দেশী মদ উদ্ধার করা হয়। তিনি আইন-শৃংখলা আরও উন্নতি লক্ষ্যয উপস্থিত সকল চেয়ারম্যানের নিকট সহযোগিতা কামনা করেন।

 

   জনাব মোহাম্মদ ফজলুল হক, চেয়ারম্যান, শোলস্না ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, তার এলাকার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোটামোটি ভালো। তবে এখন প্রায়ই ডাকাতির ঘটনা ঘটছে । তিনি এ ব্যাপারে পুলিশি সহায়তা কামনা করেন।

 

   তিনি আরও বলেন যে, আগে পাড়াগ্রাম তহসিল অফিসটি শোলস্নায় ছিল। এখন সেই অফিসটি পাড়াগ্রামে অবস্থিত। শোলস্না ইউনিয়নের এলাকার লোকজনের পাড়াগ্রাম তহসিল অফিসে গিয়ে জমির খরিজ, খাজনা পরিশোধ করতে হয়। তাই তিনি এলাকার জনগণের স্বার্থে পুনরায় তহসিল অফিসটি শোলস্নায় আনার জন্য অনুরোধ করেন।

 

   তৎপ্রেক্ষেতে সভাপতি জানান যে, প্রত্যেক ইউনিয়নে তহশিল অফিস স্থাপনের লক্ষ্য ইতিমধ্যে প্রসত্মাব প্রেরণ করা হয়েছে।

 

   জনাব মোঃ পলাশ চৌধূরী, চেয়ারম্যান, নয়নশ্রী ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে,  তার এলাকার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোটামোটি ভাল। তবে বিদ্যুতের অবস্থা ভালো নয়। দৈনিক প্রায় ৬ ঘন্টা বিদ্যুৎ থাকে আর বাকী সময় বিদ্যুৎ থাকে না। তাছাড়া পলস্নী বিদ্যুতের কোন অভিযোগ কেন্দ্র নেই। সে কারণে সামান্য বৈদ্যুতিক সমস্যার কারণে নয়নশ্রী এলাকার লোকজনের খুব সমস্যা হচ্ছে। তিনি এ ব্যাপারে পলস্নী বিদ্যুতের জি.এম এর নিকট এ সমস্যা সমাধানের জন্য অনুরোধ করেন।

 

১। গালিমপুর ও বারম্নয়াখালী ইউনিয়নে প্রসত্মাবিত পয়েন্টে স্থায়ী পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপনের লক্ষে ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসন থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সুপারিশসহ প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করার জন্য অফিসার ইন-চার্জ, নবাবগঞ্জ থানাকে অনুরোধ করা হয়।

 

 

 

 

 

২। আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

 

১। অফিসার ইন-চার্জ

    নবাবগঞ্জ থানা।

 

২। সংশিস্নষ্ট ইউপি  

    চেয়ারম্যানগণ

পরপাতা-২

-২-

 

 

     জনাব এরশাদ আল মামুন,চেয়ারম্যান, বক্সনগর ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, তার এলাকায় এক মহিলার বাড়িতে চুরি হয় কিমত্মু মহিলা চোরকে চিনে ফেলে পরে তার চিৎকারে এলাকার লোকজন হাজির হয়। তিনি উপস্থিত লোকজনের সামনে চোরের বর্ণনা দেন এবং কয়েক বাড়ি পরে মহিলার বর্ণনা অনুযায়ী চোরকে পাওয়া যায়। এ নিয়ে এলাকার কিছু বখাটে ছেলেরা আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতি করার চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে সহযোগিতায় করার জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করেন। 

  

    জনাব মোঃ আবু সাঈদ, চেয়ারম্যান, চুড়াইন ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, সন্ত্রাসী দুই গ্রম্নপের আধিপত্য বিসত্মারকে কেন্দ্র করে গোবিন্দপুর কারিগর বাড়ির কাছে বাচ্চু মিয়া নামক এক ব্যক্তিকে রাত ৯টার দিকে মাথায় আঘাত করে পরে জবাই করে হত্যা করে। এই হত্যার জের ধরে প্রতিশোধ নেয়ার জন্য প্রতিপক্ষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিচ্ছে। এমতাবস্থায় জরম্নরীভিত্তিতে পুলিশি ব্যবস্থা না নিলে যে কোন মূহূর্তে বড় ধরনের দুঘর্টনা ঘটতে পারে মর্মে সভায় জানান।

 

 

 

 

 

০৩.

মাদক সম্পর্কিত আলোচনাঃ

    জনাব মোঃ মোক্তার হোসেন, চেয়ারম্যান, কৈলাইল ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে,শহরের ন্যায় এখন গ্রামের মাদক সেবনকারী ও মাদক ব্যবসায়ীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। যদি তা এখনি রোধ করা না যায় তাহলে ভবিষ্যতে তরম্নণ সমাজ এর প্রতি আরও বেশি আসক্ত হয়ে পড়বে। তাছাড়া পাড়াগ্রাম বাজারটি কয়েকটি উপজেলার সংযোগ স্থান। সেখানে প্রায়ই  প্রকাশ্যে মাদক সেবন ও  মাদক ক্রয়-বিক্রয় এর ব্যবসা চলছে।  তাই মাদক সেবন ও বিক্রয়কারীর ব্যাপারে জোরালো ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভায় অনুরোধ করেন।

 

    জনাব মোহাম্মদ ফজলুল হক, চেয়ারম্যান, শোলস্না ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, তার এলাকায় রম্নপাচর নামক স্থানে দেশীয় মদের কারখানা রয়েছে। বার বার পুলিশি অভিযানের পরেও মাদক ব্যবসায়ীদের ধরা যাচ্ছে না মর্মে সভায় জানান। তিনি এ ব্যাপারে জরম্নরীভিত্তিতে পুলিশি সহায়তা কামনা করেন।

 

    জনাব সুবেদুজ্জামান সুবেদ, চেয়ারম্যান, বাহ্রা ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, আলগীরচর ও বলমমত্মচরে এখন মাদক, গাঁজা হিরোইনসহ সকল প্রকার মাদক অবাধে ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। পাবেল বাহিনীর অত্যাচারে এই দুই গ্রামের লোকজন এখন অসহায়। তাদের অত্যাচার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তারা সকল ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত মর্মে তিনি সভায় জানান। তিনি এ ব্যাপারে দ্রম্নত পুলিশি সহযোগিতা কামনা করেন।

 

মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় ও সেবনকারীদের মোবাইল কোর্টের আওতায় এনে শাসিত্ম প্রদানের জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

 

 

 

 

 

 

 

আলগীচর ও বলমমত্মর চর এলাকায় পুলিশি টহল বৃদ্ধির সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

১। উপজেলা নির্বাহী অফিসার

 

১। অফিসার ইন-চার্জ  

    নবাবগঞ্জ থানা।

 

 

০৪.

পরিবহন সমস্যা বিষয়ক আলোচনাঃ

      জনাব মোঃ হিলস্নাল মিয়া, চেয়ারম্যান, বান্দুরা ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, নছিমন ও করিমন জাতীয় পরিবহনের বিষয়ে সকল ইউপি চেয়ারম্যান দ্রম্নত ব্যবস্থা নিতে বলেন। বিশেষ করে বান্দুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বলেন বান্দুরা বাজারে বাস, গতি, মটর সাইকেল ও ইজি বাইকগুলোর কারণে দীর্ঘ যানযট সৃষ্টি হয় এবং প্রায়ই দুঘর্টনা ঘটে। তিনি আরও বলেন যে, বান্দুরা টু বাংলা বাজার, বান্দুরা টু শিকারীপাড়া ও বান্দুরা টু নবাবগঞ্জ রোডে যে সমসত্ম গতি গাড়ি চলাচল করে তাদের নির্দিষ্ট  পার্কিং এর ব্যবস্থা নেই। তাই তিনি নির্দিষ্ট পার্কিং এর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন।

 

 

 

 

 

 

জনাব তৈয়ব আহামেদ, চেয়ারম্যান, কলাকোপা ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, নবাবগঞ্জ চৌরঙ্গী মোড় নবাবগঞ্জের মধ্যে সবচেয়ে ব্যসত্মতম রাসত্মা । প্রতিদিন এখানে প্রায় সময়ই যানযট সৃষ্টি হয়। নবাবগঞ্জ চৌরঙ্গী মোড়ের যানযট কমানোর জন্য নির্দিষ্ট পার্কিং এর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জন্য অনুরোধ করেন।

 

 

১। বান্দুরা বাজার থেকে বাংলা বাজারের দিকে যে সকল গতি গাড়ি চলাচল করে তারা বান্দুরা ব্রীজ পাড় হয়ে নতুন বান্দুরা বাজারে পার্কিং করবে।(নয়নশ্রী ব্রীজের ওপারে)

 

২। বান্দুরা বাজার থেকে শিকারীপাড়ার দিকে যে সমসত্ম গতি গাড়ি চলাচল করে তারা বান্দুরা ব্রীজ সংলগ্ন স্থানে ব্রীজের পশ্চিম পার্শ্বে পার্কিং করবে।

 

 

১। নবাবগঞ্জ থেকে শোলস্না-পাড়াগ্রামের দিকে যে সকল গতি গাড়ি চলাচল করে তারা নবাবগঞ্জ ব্রীজের পূর্ব পাড়ে পার্কিং করবে।

 

২। নবাবগঞ্জ থেকে যে সকল গতি গাড়ি মরিচা ও বক্সনগর, গালিমপুর, টিকরপুর রোডে চলাচল করে তারা নবাবগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সামনে পার্কিং করবে।

 

৩। নবাবগঞ্জ থেকে বান্দুরা, মাঝিরকান্দা দিকে যে সমসত্ম গতি ও ইজিবাইক চলাচল করবে সেগুলো নিমতলা মন্দিরের সামনে অবস্থান করবে।

 

১। উপজেলা নির্বাহী অফিসার

২। অফিসার ইন-চার্জ

     নবাবগঞ্জ থানা।

৩। বান্দুরা, ইউপি

     চেয়ারম্যান

৪। কলাকোপা, ইউপি

     চেয়ারম্যান

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

পরপাতা-৩

-৩-

০৫.

ভূমি সংক্রামত্ম বিষয়ক আলোচনাঃ

জনাব মোহাম্মদ ফজলুল হক, চেয়ারম্যান, শোলস্না ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, ইছামতি নদীর পাশের প্রায় জায়গাই দখল হয়ে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে বার বার বলা হলেও কোন পদক্ষেপ না নেয়ার কারণে সরকারি জায়গা বেদখল হয়ে যাচ্ছে। তাই তিনি দ্রম্নত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন।

 

জনাব রেজাউল করিম, প্রধান শিক্ষক, নবাবগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সভায় বলে যে, নবাবগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ৯.৮৭ একর জায়গার মধ্যে সার্ভেয়ার দ্বারা কিছু জায়গা মাপ করা হয়। কিন্তু বিদ্যালয়ের পক্ষের সার্ভেয়ার অসুস্থ থাকায় জমি মাপা সম্পন্ন হয়নি। তবে সার্ভেয়ার সুস্থ হলে পুনরায় বিদ্যালয়ের জায়গা মাপা হবে।

 

সরকারি জায়গা যাতে বেদখল না করা হয় সে ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকার জন্য সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

পাইলট স্কুলের জায়গা দ্রম্নত মাপ সম্পন্ন করার জন্য সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয় ।

 

১। উপজেলা নির্বাহী

     অফিসার

 

২। সহকারী

     কমিশনার(ভূমি)

 

 

 

       বেগম ইয়াসমিন আক্তার, ভাইস-চেয়ারম্যান (মহিলা), উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ , উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নতি এবং মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়, ইভটিজিং ও নারী নির্যাতন বিষয়ে পুলিশ বাহিনীকে আরও তৎপর থাকার জন্য অনুরোধ করেন।

  

    জনাব শেখ হান্নান উদ্দিন, ভাইস-চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ বলেন যে, বর্তমানে এ উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভাল। ভবিষ্যতেও উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নতির ব্যাপারে পুলিশ বাহিনীকে আরও তৎপর থাকার জন্য অনুরোধ করেন।

  

    জনাব খন্দকার আবু আশফাক, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা জানান যে, সময়মতো যাতে আইন-শৃংখলা সভা আরম্ভকরা যায় সে ব্যাপারে সকলকে দৃষ্টি দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। লাইসেন্স ও নম্বরবিহীন মোটর সাইকেলগুলোকে তাদের কাগজপত্র তৈরীর জন্য বেধে দেওয়া নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষ হওয়ায় মোবাইল কোর্টের আওতায় আনাসহ চুড়াইন ইউনিয়নের দুইটি সন্ত্রাসী বাহিনীর ব্যাপারে দ্রম্নত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে এবং পাবেল বাহিনীর ব্যাপারে দ্রম্নত ব্যবস্থা নিতে পরামর্শ প্রদান করেন। তিনি আরও বলেন যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নছিমন ও ইজিবাইকের তালিকা সংশিস্নষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানগণ তৈরী করবেন এবং  মাদক ব্যবসায়ীদের বিরম্নদ্ধে মোবাইল কোর্ট পচিালনাসহ সকল অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে তাৎক্ষনিক শাসিত্মর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পরামর্শ প্রদান করেন।

 

    পরিশেষে গৃহীত সিদ্ধামত্ম বাসত্মবায়নের জন্য ব্যবস্থা নিতে সকলকে অনুরোধ জানিয়ে আর কোন আলোচনা না থাকায় উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।                                                                                                    

                                                                                                               

 

 

                                                                ( দেওয়ান মাহবুবুর রহমান )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

                                                                                                                                                                                ফোন নং- ৭৭৬৫০০১

 

 

স্মারক নং-উনিঅ/নবাব/আইন-শৃংখলা/২০১২-৫০৭(৩৫)                                                                        তারিখঃ ২৯-০৮-২০১২ খ্রিঃ ।

 

 অনুলিপিঃ  সদয় জ্ঞাতাথে ও কার্যার্থে ঃ

 

১। মহা-পরিচালক, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, ঢাকা।

২। জেলা প্রশাসক, ঢাকা।

৩। পুলিশ সুপার, ঢাকা।

৪।  চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৫। ভাইস চেয়ারম্যান/ ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা), উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৬। সহকারী কমিশনার (ভূমি), নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৭।  উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৮। উপজেলা শিক্ষা অফিসার, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৯। অফিসার ইন চার্জ, নবাবগঞ্জ থানা, ঢাকা।

১০। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১১। উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১২। উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১৩। চেয়ারম্যান ................................................................ ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১৪। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডার, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১৫। সভাপতি, নবাবগঞ্জ প্রেস ক্লাব, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১৬। অধ্যক্ষ, দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১৭। প্রধান শিক্ষক, নবাবগঞ্জ পইলট উচ্চ বিদ্যালয়, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

১৮। সুপার, নবাবগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

পরিশিষ্ট-ক

ক্রমিক নং

সদস্যদের নাম ও ঠিকানা

মমত্মব্য

০১

জনাব খন্দকার আবু আশফাক, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০২

,, শেখ হান্নান উদ্দিন, ভাইস-চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৩

,, ইয়াসমিন আক্তার, ভাইস-চেয়ারম্যান (মহিলা), উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৪

,, ডাঃ শ্যামলাল পাল, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৫

,,  আজিজুর রহমান, অফিসার ইন চার্জ(তদমত্ম), নবাবগঞ্জ থানা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৬

,, মোহাম্মদ ইয়াকুব আলী মিঞা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৭

,, মিজানুর রহমান, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৯

,, কাজী সাজ্জাদ হোসেন, উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১০

,, মোঃ কামাল পাশা, এ.জি.এম, ঢাকা পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতি-২, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১১

,, মোঃ সাইদুর রহমান, অধ্যক্ষ, নবাবগঞ্জ পাইলট উচ্চ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১২

,, মোঃ রেজাউল করিম, প্রধান শিক্ষক, নবাবগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৩

,, এ. কে. এম আহমেদ উলস্নাহ, সুপার, নবাবগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৪

,, আলীমোর রহমান খান পিয়ারা, চেয়ারম্যান, জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৫

,, মোতাহার হোসেন, চেয়ারম্যান, জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৬

,, আবদুলস্নাহ আল মামুন, চেয়ারম্যান, বারম্নয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৭

,, মোঃ পলাশ চৌধুরী, চেয়ারম্যান, নয়নশ্রী ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৮

,, মোহাম্মদ ফজলুল হক, চেয়ারম্যান, শোলস্না ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৯

,, মোঃ হিলস্নাল মিয়া, চেয়ারম্যান, বান্দুরা ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২০

,, তৈয়ব আহমেদ, চেয়ারম্যান, কলাকোপা ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২১

,, এরশাদ আল মামুন, চেয়ারম্যান, বক্সনগর ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২২

,, মোঃ সুবেদুজ্জামান(সুবেদ), চেয়ারম্যান, বাহ্রা ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৩

,, মোঃ মোক্তার হোসেন, চেয়ারম্যান, কৈলাইল ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৪

,, আবেদ হোসেন, চেয়ারম্যান, আগলা ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৫

,, তপন মোলস্না, চেয়ারম্যান, গালিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৬

,, মোঃ আবু সাইদ, চেয়ারম্যান, চুড়াইন ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

উপজেলা পরিষদ

নবাবগঞ্জ

ঢাকা।

 

 

উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকার  ২০৩তম মাসিক  সাধারণ সভার কার্যবিবরণীঃ

 

 

সভাপতিঃ

 জনাব খন্দকার আবু আশফাক

  চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ

  নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

সভার তারিখ ও সময়ঃ

 ২৯-০৮-২০১২ খ্রিঃ,  সকাল ১১.৩০ ঘটিকা

স্থানঃ

 নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষ ।

উপস্থিতিঃ

 পরিশিষ্ট (ক) দ্রষ্টব্য ।

 

 

     সভাপতি সভায়  উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভা শুরম্ন করেন। অতঃপর তিনি সভার আলোচ্যসূচী অনুযায়ী কার্যক্রম শুরম্ন করার জন্য মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা , উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা কে অনুরোধ জানান।

 

 ১। গত সভার কার্যবিবরণী পাঠ ও অনুমোদনঃ

      উপজেলা পরিষদের বিগত মাসের সভার কার্যবিবরণী সভায় পঠিত হয় এবং কিছু সংশোধনী সাপেক্ষ তা সর্ব সম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়।

 

 

২। আলোচ্য বিষয়ঃ উপজেলার বিভিন্ন অফিস/দপ্তর/বিভাগের বিভাগীয় কার্যক্রম প্রসঙ্গে আলোচনা ও সিদ্ধামত্ম গ্রহণঃ

 

 

 

ক্রঃ নং

আলোচ্য বিষয়সমূহ

সিদ্ধামত্ম

বাসত্মবায়ন

০১.

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগঃ

      উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জনাব ডাঃ শ্যামলাল পাল জানান যে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের রম্নটিন কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। ১। নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের নামে অধিগ্রহণকৃত কলাকোপা ইউরিয়নের কাশিমপুর মৌজার ২৭৮নং দাগ এবং ৩৯২ নং খতিয়ানের ৪০ শতাংশ জমির ০৮ শতাংশ জমি কাশিমপুর নিবাসী জনাব মহসিন আহমেদ তুষার তাহার মায়ের বলিয়া দাবি করেন এবং রাসত্মা সংলগ্ন টিনশেডটিতে তিনি ১৭-০৮-২০১২ খ্রিঃ তারিখে তালা লাগাইয়া দখল করেন যাহা উপজেলা প্রশাসনকে চিঠির মাধ্যমে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পরিষদের নিকট অনুরোধ জানান। ২। ১৫ আগষ্ট/১২ খ্রিঃ তারিখে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীর জনক বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়। উক্ত দিবসে স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের মসজিদে জাতির জনকের আত্নার শামিত্ম কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। ৩। নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দূরা ইউনিয়নের সাবেক ২নং, বারম্নয়াখালীর সাবেক ৩নং, বক্সনগরের সাবেক ১নং, আগলার সাবেক ১নং, চুড়াইনের সাবেক ৩নং, কলাকোপার ১নং ওয়ার্ডে কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মানের জন্য ০৮ শতাংশ নিস্কন্টক জমি দান করার ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান বৃন্দদেরকে অনুরোধ জানানো হয়। ৪। ৩০টি কমিউনিটি ক্লিনিক হতে যথারীতি স্বাস্থ্য সেবা দেওয়া হচ্ছে। আগষ্ট/১২ মাসে কমিউনিটি ক্লিনিক হতে মোট ২০৯৭১ জন রোগীকে সেবা দেওয়া হয় এবং ২১৪ জন রোগীকে উচ্চতর কেন্দ্রে রেফার করা হয়। ৫। ১লা আগষ্ট হইতে ৭ আগষ্ট/১২ পর্যমত্ম বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ পালন করা হয়। উক্ত সপ্তাহে গর্ভধারণে সÿম সকল মহিলাকে ৬ মাস পর্যমত্ম সকল শিশুকে শুধুমাত্র মায়ের দুধ খাওয়ানোর ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করা হয়। ৬। হাসপাতালের গর্ভবতীদের প্রসবপূর্ব, প্রসবকালীন ও প্রসবোত্তর সেবাসহ শিশু স্বাস্থ্য সেবা যথারীতি চলছে। আগষ্ট/১২ মাসে স্বাস্থ্য কমপেস্নক্স থেকে মোট ২৮ জন গর্ভবতী মহিলাকে ডেলিভারী করানো হয় তন্মধ্যে ১৭ জন গর্ভবতী মহিলাকে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে ডেলিভারি করানো হয়। ২৭৪ জন মহিলাকে এএনসি এবং ১১০ জন মহিলাকে পিএনসি সেবা দেওয়া হয়। জুলাই/২০১২ খ্রিঃ মাসে হাসপাতালে রোগী ভর্তির হার (BOR) ১০৪%।

 

* রোগীদের যথানিয়মে সেবা প্রদানসহ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ বিভাগের কার্যাদি যথারীতি সম্পন্ন করার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

 

* উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে সম্পর্কিত কাগজপত্র সংগ্রহ করে যথাযথভাবে সংরক্ষণের জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও

পঃ পঃ কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

০২.

উপজেলা কৃষি বিভাগঃ

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জনাব ড. মোঃ নূরে আলম সিদ্দিকী সভায় জানান যে, নবাবগঞ্জ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে বৃক্ষরোপন কার্যক্রম সফলভাবে বাসত্মবায়িত হচ্ছে। কৃষকদেরকে ফলদ ও ঔষধি বৃক্ষরোপনে উদ্বুদ্ধকরণের মাধ্যমে ১৩৩২৮টি ফলদ এবং ২৯৩৯টি ঔষধি গাছের চারা রোপন করানো হয়েছে। উদ্বুদ্ধকরণের কাজ পুরোদমে চলছে এবং বৃক্ষরোপনে জনগণের যথেষ্ট আগ্রহ ছিল। নবাবগঞ্জ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে রাসায়নিক সারের মজুদ ও মূল্য পরিস্থিতি সমেত্মাষজনক। সকল প্রকার রাসায়নিক সার চাহিদা অনুযায়ী মজুদ আছে এবং নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে। কোথাও সারের ঘাটতি নেই এবং সারের দোকান নিয়মিত মনিটরিং করা হচ্ছে।

 

বৃক্ষরোপন পক্ষ সফলভাবে সম্পন্নসহ জনগনকে আরো বেশি বেশি গাছ রোপনে উৎসাহিত করার জন্য উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কে অনুরোধ করা হয় ।

 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

 

 

পরপাতা-২

-২-

০৩.

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগঃ

        উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জনাব মোঃ শাহজালাল সভাকে জানান যে, তার কার্যালয়ের বিভাগীয় কার্যক্রম নিয়মিতভাবে পরিচালিত হচ্ছে। গত ২০১১-২০১২ অর্থ বছরে বরাদ্দ পাওয়ার পর প্রায় ৫২০০০/- টাকা বকেয়াসহ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা হয়েছে। এরপরও জনসেবা মূলক প্রতিষ্ঠানগুলোর বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন করা হয়েছে। জনস্বার্থে তাদেরকে বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন না করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেন আগষ্ট/১২ মাসের কার্যক্রম নিম্নরম্নপভাবে পরিচালিত হয়েছে মর্মে সভাকে অবহিত করেন। ১। মোট সক্ষম দম্পতির সংখ্যাঃ ৬৭,৫২৭। ২। খাবার বড়িঃ নতুন = ৩১২ জন। ৩। কনডমঃ নতুন = ১৭২ জন। ৪। ইনকেশন নতুন = ১২৫ জন। ৫। আই ইউ ডি নতুন = ১১ জন। ৬। ইমপান্ট = নতুন ১৪ জন। ৭। স্থায়ী পদ্ধতি- পুরম্নষ  নতুন = ০২ জন। ৮। মহিলা নতুন = ২৪ জন। ৯। ইসিপিঃ ১ জন।  ১০। চলতি মাসে গর্ভবতী মায়ের সংখ্যা = ৮৩৯ জন। ১১। প্রজনন স্বাস্থ্য সেবাঃ ১১৫১ জন। ১২। ইপিআই সেশন উপস্থিতঃ ২০১ জন। ১৩। গর্ভবতী মায়ের যত্ন = ৪১৫ জন। ১৪। অন্যান্য সেবা প্রাপ্ত শিশুঃ ৭২০ জন। ১৫। ডেলিভারীঃ ৩৯ জন। ১৬। জীবিত জন্মের সংখ্যাঃ ২৬৬ জন। ১৭। মৃতের সংখ্যাঃ ৫৪ জন। ১৮। সাধারণ রোগীর সেবাঃ ৪৪৪০ জন। ১৯। গর্ভোত্তর যত্নঃ ১২৯ জন। ১৮। পদ্ধতি গ্রহণকারীর হার = ৭২.৪২%।

 

যথা নিয়মে সেবা প্রদানে তৎপর থাকতে এবং তার দপ্তরের জন্য নির্ধারিত সকল মাসিক সভা নিয়মিত করতে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানানো হয়।

 

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা

    নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

  ০৪.

উপজেলা শিক্ষা বিভাগঃ 

   উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জনাব ইয়াকূব আলী মিঞা সভাকে জানান যে, বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।  উপজেলায় বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক শূণ্য থাকায় পাঠদান কার্যক্রম কিছুটা অসুবিধা হচ্ছিল। কিন্তু গত ২২-০৮-২০১২ খ্রিঃ তারিখে ৭০ জন সহকারি শিক্ষক নবাবগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ায় শিক্ষক স্বল্পতা দূর হবে এবং পাঠদান আরও গতিশীল হবে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু ভর্তির হার ১০০% এ উন্নতি করার জন্য সম্মানিত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

শিক্ষা বিভাগের সকল কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার জন্য উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

 

উপজেলা শিক্ষা  কর্মকর্তা

 নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

০৫.                                                                                                        

 

 

উপজেলা মৎস্য বিভাগঃ

 

     উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জনাব মোঃ কামরম্নল হাসান সরকার সভাকে জানান যে, বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। মৎস্যজীবী জেলেদের আইডি কার্ড প্রদানের জন্য প্রাথমিক তালিকার কাজ চলছে। উপজেলা পরিষদ পুকুরে মৎস্য কার্যক্রম চলছে। রাজস্ব খাত ও উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সাদাপুর খালে ২৪৪.৪৪ কেজি রম্নই জাতীয় পোনা মাছ ও শিকারীপাড়া ইউনিয়নের বিষমপুর জলাশয়ে ২০০ কেজি রম্নই জাতীয় পোনা মাছ মোট=৪৪৪.৪৪ কেজি রম্নই জাতীয় পোনামাছ অবমুক্ত করা হয়েছে। চিহ্নিত অবক্ষয়িত জলাশয় উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা এবং দেশীয় প্রজাতির ছোট মৎস্য সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় শিকারীপাড়া ইউনিয়নের পুনঃখননকৃত ইছামতি মরা নদীতে ১০৫.৪৮ কেজি দেশীয় প্রজাতির ছোট মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয় ।

 

সকল ধরণের পোনাসহ জাটকা রক্ষার ব্যাপারে আরও সক্রিয় থাকতে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

 

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত)

 নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৬.

উপজেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগঃ

 

     উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জনাব ডাঃ ইকবাল হোসেন চাকলাদার সভাকে জানান যে, তার দপ্তরের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হচ্ছে। আগষ্ট/১২ মাসের নিম্ন বর্ণিত কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছেঃ- টিকা প্রদানঃ গরম্ন-৫০০টি, হাঁস-১৫০০টি, মুরগী-৪১৩০০টি। কৃত্রিম প্রজনন (গাভী/বকনা) ৮২৯টি। চিকিৎসাঃ গরম্ন-১৭৩টি, ছাগল-৩৫টি, হাঁস ও মুরগী-৩৪৩০টি, অন্যান্য-৪৫টি।

প্রাণিসম্পদ বিভাগের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা  প্রাণিসম্পদ  কর্মকর্তা 

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

০৭.

উপজেলা সমাজ সেবা বিভাগঃ

 

     উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জনাব মোঃ মিজানুর রহমান সভাকে জানান যে, বিভাগের কাজ স্বাভাবিক চলছে। ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরের জন্য ২৯৬ জন মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে সম্মানি ভাতা বিতরণের লক্ষে সংশিস্নষ্ট মন্ত্রণালয়ে চাহিদা পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

সকল ভাতাভোগীর ভাতা সুষ্ঠুভাবে বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সমাজসেবা কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

১। উপজেলা  

   সমাজসেবা কমৃকর্তা

   নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

০৮.

উপজেলা ত্রাণ বিভাগঃ

 

     উপজেলা প্রকল্প বাসত্মবায়ন কর্মকর্তা জনাব মোঃ ছাইফুলস্নাহ মজুমদার সভায় জানান যে,  (১) ঝুকি হ্রাস কর্মসূচীর আওতায়ঃ (ক) বরাদ্দকৃত অর্থ = ৩৫,০০,০০০/- (খ) অবিতরণকৃত অর্থ = ৯০,০০০/- (গ) সুবিধাভোগির সংখ্যা =৩৬২ জন। (ঘ) ঋণ বাবদ আদায়কৃত অর্থ = ১৭,৪৪,৫৫৫/- (ঙ) ঋণ বাবদ অনাদায়ী অর্থ =৮,৫৭,২৯৫/- (চ) ৪% সার্ভিস চার্জ বাবদ আদায়কৃত অর্থ = ৭২,৬৯০/- (ছ) জুন/১২ মাস পর্যমত্ম আদায়কৃত অর্থের পরিমণ =১৮,৫২,২৪৫/-।

 

প্রকল্প বাসত্মবায়ন বিভাগের কার্যাদি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার জন্য উপজেলা প্রকল্প বাসত্মবায়ন কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

 

 

উপজেলা প্রকল্প বাসত্মবায়ন কর্মকর্তা

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

০৯.

উপজেলা পলস্নী উন্নয়ন বিভাগঃ

   উপজেলা পলস্নী উন্নয়ন কর্মকর্তা জনাব উম্মে হাবিবা সভাকে জানান যে, অত্র নবাবগঞ্জ উপজেলার বিআরডিবি মূল প্রকল্পসহ সকল প্রকল্পের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে। চলতি অর্থ বছরে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ২৭.০৫(লক্ষ) টাকা। ঋণ আদায় হয়েছে ২৩.৩৭ (লক্ষ) টাকা। সমন্বয় জমা হয়েছে ১৯.৪৭ (লক্ষ) টাকাএ ছাড়া সভায় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে নতুন ১৬টি সমিতিসহ সর্বমোট ৩৬ টি সমিতি গঠন করা হয়েছে।

 

উপজেলা পলস্নী উন্নয়ন বিভাগের ঋণ আদায়ের তৎপরতা বৃদ্ধি করার জন্য উপজেলা পলস্নী উন্নয়ন কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

 

উপজেলা পলস্নী উন্নয়ন কর্মকর্তা

নবাবগঞ্জ, ঢাকা

 

      

 

পরপাতা-৩

 

 

-৩-

 

১০.

উপজেলা প্রকৌশলী বিভাগঃ

 

 

আলোচ্যসূচি-১

      সভায় উপজেলা প্রকৌশলী জনাব ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ জানান যে, ভাইস-চেয়ারম্যান (মহিলা), উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ ও ইউপি চেয়ারম্যানগণ নিম্ন বর্ণিত উন্নয়ন তহবিল থেকে ৬টি প্রকল্প বাসত্মবায়নের জন্য আবেদন করেছেন। উক্ত আবেদনের প্রেক্ষতে নিম্ন লিখিত প্রকল্প বাসত্মবায়নের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী সভায় প্রসত্মাব পেশ করেন।

সিদ্ধামত্ম

বাসত্মবায়ন

 

 

সভায় বিসত্মারিত আলোচনামেত্ম উক্ত প্রসত্মাব অনুমোদিত হয় এবং তহবিল প্রাপ্তি স্বাপেক্ষে তদানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

উপজেলা চেয়ারম্যান

উপজেলা নির্বাহীঅফিসার

উপজেলা প্রকৌশলী

 

ক্রঃ নং

ইউনিয়ন

স্কীমের নাম

প্রকল্প সভাপতির নাম

সম্ভাব্য ব্যয়

 

১।

বান্দুরা

নূরনগর বাস স্ট্যান্ড থেকে রাজ্জাক মেম্বারের বাড়ি পর্যমত্ম ইট সলিং দ্বারা উন্নয়ন।

ইয়ামিন আক্তার, ভাইস,চেয়ারম্যান (মহিলা, উপজেলা পরিষদ,নবাবগঞ্জ।

১,০০,০০০/-

 

২।

যন্ত্রাইল

যন্ত্রাইল উকিল বাড়ির সামনে ইট সলিং রাসত্মা হতে জয়নাল মেম্বারের বাড়ি পর্যমত্ম রাসত্মা উন্নয়ন।

নন্দলাল সিং,চেয়ারম্যান

যন্ত্রাইল ইউপি।

১,০০,০০০/-

 

৩।

কলাকোপা

আমিরপুর মাজেদের বাড়ি হতে আঃ সালামের বাড়ি পর্যমত্ম রাসত্মা ব্রীক সলিং দ্বারা উন্নয়ন।

তৈয়ব আহমেদ, চেয়ারম্যান কলাকোপা ইউপি।

১,০০,০০০/-

 

৪।

কলাকোপা

কলাকোপা রাজারাপুর শীতলা মন্দির সংস্কার ও মেরামত।

তৈয়ব আহমেদ, চেয়ারম্যান কলাকোপা ইউপি।

১,০০,০০০/-

 

৫।

বান্দুরা

হাসনাবাদ মেইন রাসত্মা থেকে ইকরাশী রাসত্মা মেরামত।

মোঃ হিলস্নাল মিয়া, চেয়ারম্যান বান্দুরা ইউপি।

১,০০,০০০/-

 

৬।

কৈলাইল

নবাবগঞ্জ-পাড়াগ্রাম হাট জিসি রাসত্মা মেলেং ভাংগায় পাকা রাসত্মা মেরামত।

মোক্তার হোসেন, চেয়ারম্যান, কৈলাইল ইউপি।

১,০০,০০০/-

 

 

আলোচ্যসূচী-২

সভায় বান্দুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জানান যে, পুরাতন বান্দুরা বাজরের স্যানিটেশন সংস্কার/মেরামত করা প্রয়োজন এমতাবস্থায়, হাট-বাজার খাত হতে ৪০,০০০/- টাকার একটি প্রকল্প গ্রহণের জন্য সভায় প্রসত্মাব পেশ করেন।

সভায় বিসত্মারিত আলোচনামেত্ম উক্ত প্রসত্মাব অনুমোদিত হয় এবং তদানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

উপজেলা প্রকৌশলী

 

ক্রঃ নং

ইউনিয়ন

স্কীমে নাম

প্রকল্প সভাপতির নাম

প্রাক্কলিত মূল্য

 

১।

বান্দুরা

পুরাতন বান্দুরা বাজারের স্যানিটেশন মেরামত/সংস্কার।

জনাব মোঃ হিলস্নাল মিয়া, চেয়ারম্যান বান্দুরা ইউপি

৪০,০০০/-

 

আলোচ্যসূচি-৩

      সভায় উপজেলা প্রকৌশলী জনাব ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ জানান যে, উপজেলা পরিষদের কর্তৃক নিমিত বান্দুরা সুপার মার্কেট ও কোমরগঞ্জ সুপার মার্কেটের দোকানের ভাড়া দীর্ঘ দিনের বকেয়া রয়েছে । তিনি বকেয়া ভাড়ার তালিকা সভায় উপস্থাপন করেন এবং বকেয়া ভাড়া আদায়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন। বিসত্মারিত আলোচনামেত্ম বকেয়া ভাড়া আগামী ১০(দশ) দিনের মধ্যে পরিশোধের জন্য দোকান মালিকদের নোটিশ প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হয় এবং নোটিশ প্রাপ্তি পর দোকান মালিকগণ বকেয়া পরিশোধে ব্যর্থ হলে আনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

বাসত্মবায়ন

 

 

উপজেলা নির্বাহীঅফিসার

উপজেলা প্রকৌশলী

 

আলোচ্যসূচী-৪

জনাব ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ, উপজেলা প্রকৌশলী, সভায় জানান যে, নিম্নবর্ণিত ২০২তম মাসিক সাধারণ ২টি প্রকল্প ও প্রকল্প সভাপতির নাম সংশোধন করা প্রয়োজন । উক্ত প্রকল্পের বিপরীতে  সংশোধিত তালিকার প্রকল্প ২টি ও  পিআইসি (সভাপতির) এর নাম সংশোধনের জন্য সভায় প্রসত্মাব পেশ করেন।

 

আলোচনামেত্ম উপজেলা প্রকৌশলী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন মর্মে সিন্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

উপজেলা প্রকৌশলী

ক্রঃ নং

ইউনিয়ন

স্কীমে নাম

প্রাক্কলিত মূল্য

সংশোধিত প্রকল্পের নাম

সংশোধিত প্রকল্প সভাপতির নাম

প্রাক্কলিত মূল্য

(১)

কলাকোপা

জালালপুর উদয়ন মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেপটিক ট্যাংক মেরামত ও সংস্কার। (অংশ-১)

১০০০০০/-

জালালপুর উদয়ন মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেপটিক ট্যাংক নির্মান। (অংশ-১)

বাবুল লাল মদক, ইউপি সদস্য,কলাকোপা

১০০০০০/-

(২)

কলাকোপা

জালালপুর উদয়ন মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেপটিক ট্যাংক মেরামত ও সংস্কার। (অংশ-১)

১০০০০০/-

জালালপুর উদয়ন মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেপটিক ট্যাংক নির্মান । (অংশ-১)

বাবুল লাল মদক, ইউপি সদস্য,কলাকোপা

১০০০০০/-

 

 

১১.

 

উপজেলা পরিসংখ্যান বিভাগঃ

   উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা জনাব নুরম্নল ইসলাম ভূইয়া, সভায় জানান যে, বিভাগের নিয়মিত কাজ স্বাভাবিক চলছে। তিনি পরিসংখ্যান অফিসের স্থান সংকুলানের সমস্যা সম্পর্কে জানান যে একটি মাত্র কক্ষে কর্মকর্তা, কর্মচারী, আসবাবপত্র, কম্পিউটার, মটরসাইকেল সহ মানবেতর অবস্থায় অফিস কার্য পরিচালনা করছি। পরিসংখ্যান অফিসের জন্য ০৩টি রম্নম বরাদ্দের জন্য একাধিকবার লিখিতভাবে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করা হয়েছে। বিগত কয়েকটি উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারণ সভায় পরিসংখ্যান অফিসের স্থান সংকুলানের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে এবং সম্মানিত উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় সরজমিনে পরিসংখ্যান অফিস পরিদর্শন করে অফিসের স্থান সংকুলানের সমস্যা সম্পর্কে অবহিত হয়েছেন। বর্তমানে উপজেলা শিক্ষা অফিসের পার্শ্বে ৩টি কক্ষের নির্মান কাজ শেষ হয়েছে বিধায় উক্ত ৩টি কক্ষ উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসের নামে বরাদ্দ প্রদানের জন্য অত্র সভার সকল সদস্যবৃন্দের সমীপে সবিনয় ও বিনীতভাবে অনুরোধ করেন।

 

 

তার বিভাগের কার্যাদি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা জন্য উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা কে  অনুরোধ করা হয়।

 

 

উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা

নবাবগঞ্জ, ঢাকা

 

                     

 

 

পরপাতা-৪

 

 

-৪-

 

১২.

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিভাগঃ

   উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা জনাব মোঃ জোবায়েদ আলী সভায় জানান যে,খাদ্য দপ্তরের কার্যক্রম সঠিকভাবে চলছে। আটা ও ময়দার বাজার দর অনেকটাই উর্ধগামী। তিনি বলেন চিনি, ভোজ্য তেলের ও চাউলের বাজার স্থিতিশীল আছে। চলতি বছর ধান বা চাল কোনটাই অত্র উপজেলায় সংগৃহীত হয়নি। কলাকোপা খাদ্যগুদামে অবকাঠামো, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বাসগৃহ সহ  খাদ্যগুদামের ছাদ দারম্নণভাবে ড্যামেজ হয়েছে। বৃষ্টি হলে ছাদ চুয়ে পানি পড়ে এবং ভারী বৃষ্টি হলে পানি বেশি পড়ে। যার ফলে খাদ্য শস্য নষ্ট হওয়ার সম্ভবনা আছে। তাছাড়া গুদামের বাউন্ডারী ওয়াল জরম্নরীভিত্তিতেমেরামত করা প্রয়োজন।  গুদামের মজুদ খাদ্য শষ্য পর্যাপ্ত আছে। গুদামের মজুদঃ চাল-৭৮১.০০০ মেঃ টন, গম- ৪৫.০০০ মেঃ টন।

 

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিভাগের কার্যাদিসুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করাসহ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

 

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক

নবাবগঞ্জ, ঢাকা

১৩.

বিবিধ আলোচনাঃ

 

আলোচ্য সূচিঃ ১

   জনাব তৈয়ব আহমেদ, চেয়ারম্যান, কলাকোপা ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, উপজেলা কমপেস্নক্সের অভ্যমত্মরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাসভবনের সামনে পুকুরের উত্তর পাড়ে অবস্থিতে বট গাছটি দীর্ঘদিনের পুরনো গাছ। গাছটির শিকড় বেরিয়ে পুকুর পাড়ের রাসত্মাসহ আশেপাশের ভবনগুলোর ক্ষতি সাধন করছে এবং গাছের লতাপাতা পড়ে পুকুরের পানি নষ্ট করছে । ফলে মাছ চাষ ব্যহত হচ্ছে। এমতাবস্থায় তিনি উক্ত বট গাছটি কেটে ফেলার প্রসত্মাব করেন। অতঃপর বিসত্মারিত আলোচনামেত্ম উপজেলা কমপেস্নক্সের অভ্যমত্মরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বাসভবনের সামনে পুকুরের উত্তর পাড়ে অবস্থিত বট গাছটি উপজেলা নিলাম কমিটির মাধ্যমে বিক্রয় করার সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

আলোচ্য সূচিঃ ২

 

জনাব মোঃ আমির হোসেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিস সহকারী (ক্রেডিট সুপারভাইজার উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিস) উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহোদয়ের কার্যালয়ে আনুসাঙ্গিক খাতে ব্যয়িত জনাব মোঃ আমির হোসেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিস সহকারী (ক্রেডিট সুপারভাইজার, উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর) উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা কর্তৃক দাখিলকৃত মোট = ৫২১৫/- (পাঁচ হাজার দুইশত পনের) টাকার বিল দাখিল করেছেন এবং জনাব নাসির আহাম্মদ তালুকদার, অফিস সহকারী সভায় জানান যে, উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন ভবনের বৈদ্যুতিক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি ক্রয়,ইন্টারনেটের বিল বাবদ, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদের ঝাড়ুদারের ভাতা এবং পত্রিকার বিল বাবদ মোট =৭,২১০/-(সাত হাজার দুইশত দশ) টাকাখরচ হয়েছেঅতঃপর বিসত্মারিত আলোচনামেত্ম উপজেলা পরিষদ রাজস্ব তহবিল থেকে বর্ণিত ব্যয় সমূহ নির্বাহের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয় ।

 

আর কোন আলোচ্য সূচী না থাকায় উপস্থিত সম্মানিত সকল সদস্যকে সুষ্ঠুভাবে স্ব স্ব দপ্তরের কার্যক্রম পরিচালনা করার অনুরোধ জানিয়ে ও সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

                                                                                                                                                                                                                                                                                          

               (খন্দকার আবু আশফাক)

               চেয়ারম্যান

               উপজেলা পরিষদ

                নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

স্মারক নং- উপ/নবাব/মাঃ সাঃ সভা /২০১২-০২৭(৪০)                                                                                 তারিখঃ ২৯-০৮-২০১২ খ্রিঃ ।

 

  

অনুলিপিঃ সদয় অবগতির জন্য প্রেরণ করা হলোঃ-

 

১। মন্ত্রিপরিষদ সচিব, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

২। সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

৩। কমিশনার, ঢাকা বিভাগ, ঢাকা।

৪। জেলা প্রশাসক, ঢাকা।

 

অনুলিপিঃ কার্যার্থে প্রেরণ করা হলোঃ-

 

১। জনাব শেখ হান্নান উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ,ঢাকা।

২। মিসেস ইয়াসমিন আক্তার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৩। উপজেলা  .......................................................................................................অফিসার, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৪। চেয়ারম্যান ......................................................................................................... ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

৫। জনাব ...........................................................................................................................................।

 

 

(দেওয়ান মাহবুবুর রহমান)

মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা

উপজেলা পরিষদ

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

 

 

-৫-

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

 

ক্রমিক নং

নাম, পদবী

স্বাক্ষর অস্পষ্ট

০১

জনাব শেখ হান্নান উদ্দিন, ভাইস-চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০২

,, ইয়াসমিন আক্তর, ভাইস-চেয়ারম্যান (মহিলা), উপজেলা পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৩

,, দেওয়ান মাহবুবুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৫

,, শ্যামলাল পাল, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৬

,, ড. মোঃ নূরে আলম সিদ্দিকী, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৭

,, ইকবাল হোসেন বাকলাদার, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকতা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৮

,, প্রকৌশলী ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ, উপজেলা প্রকৌশলী, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

০৯

,, মোহাম্মদ ইয়কুব আলী মিঞা, উপজেলা শিক্ষাকর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।।

 

১০

,, মোঃ শাহ জালাল, উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১১

,, আবদুলস্নাহ আল মাহমুদ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১২

,, মোঃ মিজানুর রহমান, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৩

,, মোঃ নুরম্নল ইসলাম ভূইয়া, উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৪

,, মোঃ কামরম্নল হাসান সরকার, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৫

,, আলীমোর রহমান খান পিয়ারা, চেয়ারম্যান, শিকারীপাড়া ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৬

,, মোঃ মোতাহার হোসেন, চেয়ারম্যান, জয়কৃষ্ণপুর ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৭

,, আবদুলস্নাহ আল মামুন, চেয়ারম্যান, বারম্নয়াখালী ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৮

,, মোহাম্মদ ফজলুল হক, শোলস্না ইউনিয়ন পরিষদ, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

১৯

,, মোঃ হিলস্নাল মিয়া, চেয়ারম্যান, বান্দুরা ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২০

,, তৈয়ব আহমদ, চেয়ারম্যান, কলাকোপা ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২১

,, এরশাদ আল মামুন, চেয়ারম্যান, বক্সনগর ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২২

,, সুবেদুজ্জামান সুবেদ, চেয়ারম্যান, বহ্রা ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৩

,, মোঃ মোক্তার হোসেন, চেয়ারম্যান, কৈলাইল ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৪

,, আবেদ হোসেন, চেয়ারম্যান, আগলা ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৫

,, তপন মোলস্না, চেয়ারম্যান, গালিমপুর ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

 

২৬

,, আবু সাইদ, চেয়ারম্যান, চুড়াইন, ইউপি, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।